গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় অনুমোদিত

বেহাল সড়ক; খবর রাখেন না চেয়ারম্যান

কমলনগর:

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার সাহেবেরহাট ইউনিয়ন মাতাব্বরহাট-সাহেবেরহাট সড়ক গত ছয় মাস ধরে বিচ্ছিন্ন। চলাচল অনুপযোগী হওয়ায় সকল প্রকার যানবাহন যাতায়াত বন্ধ। এ পথে পায়ে হাটাও কষ্টসাধ্য।

স্থানীয় সাহেবেরহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল খায়ের জনবহুল এই বেহাল সড়ক এড়িয়ে ভিন্ন পথে  ইউনিয়ন পরিষদে যাতায়াত করেন পাশ্ববর্তী ইউনিয়নের রাস্তা দিয়ে।

এদিকে, চরম ভোগান্তিতে আছেন শত শত পরিবার। সীমাহীন দুর্ভোগেও মেরামতের উদ্যোগ না নেওয়ায় এলাকাবাসী চেয়ারম্যানকেই দোষছেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ ২০১১ সালের পরে সাহেবেরহাট ইউনিয়নে কোনো নির্বাচন হয়নি। কৌশলে ভোট বন্ধ রেখে বছরের পর বছর শাসন ও শোষন করে আসছেন বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল খায়ের। এখানকার মানুষ যতই দুঃখ-কষ্ট ও দুর্ভোগে থাকুক চেয়ারম্যানের কেনো ভ্রক্ষেপ নেই। তিনি বসবাস করেন হাজিরহাট ইউনিয়নে। চলাচল করেন ফলকন ইউনিয়নের রাস্তা দিয়ে। নিজ ইউনিয়নের রাস্তা মেরামতে তার কোনো উদ্যোগ নেই। এ ছাড়াও বরাদ্দ আসলেও কাজ করেন না।

জানা গেছে, গত জুন মাসে অস্বাভাবিক জোয়ারে মাতাব্বরহাট-সাহেবেরহাট সড়কের একটি অংশ ভেঙে খালে পড়ে যায়। ওই সড়কের একটি কালবার্টের মুখের অংশ ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এরপর থেকে যাতায়াতে নেমে আসে চরম দুর্ভোগ। এখানে অসুখে পড়লে কাউকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। কৃষকের উৎপাদিত ফসল হাটে-বাজারে নেওয়া যাচ্ছে না। শিশুরা স্কুলেও যেতে পারছেনা। রাস্তা না থাকায় ওই এলাকায় ছেলে-মেয়ে বিয়ে দিতেও রাজি হয় না অভিভাবকরা।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ওই সড়কের পূর্বপাশ ভেঙে খালে পড়ে গেছে। কালবার্টের উঠার ডালাই করা রাস্তাটাও বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় কালবার্টের বিভিন্ন অংশ। প্রায় ৩০০ মিটার রাস্তা ভাঙা এবং ভাঙনে সরু হয়ে গেছে। রাস্তাটি যানবাহন চলাচল অনুপযোগী।

এমন পরিস্থিতিতে সড়কটির পশ্চিম পাশ প্রস্তুত করে এবং খাল পাড়ের অংশে গাইউ ওয়াল নির্মাণ করে জিও ব্যাগ স্থাপনা করলে চলাচল ফের স্বাভাবিক হয়ে উঠবে।

স্থানীয় বাসিন্দা সুজন কুমার বলেন, রাস্তার এই বেহাল দশার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি তাৎক্ষণিক ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে বলেন; কিন্তু এরমধ্যে কয়েক মাস চলে গেছে রাস্তা মেরামত হয়নি।

সাহেবেরহাট ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার কামাল হোসেন বলেন, স্থানীয় মেম্বার-চেয়ারম্যানকে এ বিষয়ে জানালেও তারা কোনো কর্ণপাত করেনি; বলেন বরাদ্দ আসেনি। ইচ্ছা ও আন্তরিকতা থাকলে জরুরী ভিত্তিতে জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ করা সম্ভব।

সাহেবেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল খায়ের বলেন, সড়ক মেরামতের জন্য একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। আগামী এক মাসের মধ্যে বাস্তবায়ন করবেন।

কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মাদ কামরুজ্জামান বলেন, বেহাল সড়কের বিষয়টি তার নজরে আছে। সামনের বরাদ্দে মেরামত করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ

একদিনে করোনা শনাক্ত ১৫৫২৭, মৃত্যু ১৭

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৫২৭ জনের। এ...

রামগঞ্জে মিথ্যে মামলায় ব্যবসায়ী জেল হাজতে

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে অনৈতিক ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে মোঃ মনির হোসেন নামের এক ব্যবসায়ীকে...

কমলনগরে নির্বাচনের ২মাস পর বিজয়ী প্রার্থীর গেজেট বাতিল চেয়ে সাবেক চেয়ারম্যানের মামলা

লক্ষ্মীপুর, কমলনগর: লক্ষ্মীপুর জেলার কমলনগর উপজেলায় নির্বাচনের দুই মাস পর ভোটের ফলাফল বানচালের অভিযোগে গেজেট...

শীতে সবুজ টমেটো খাওয়ার উপকারিতা

২) ভিটাভিন সি ও ই সমৃদ্ধ কাঁচা টমেটো শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তোলে।...

রামগতিতে সরকারি হাসপাতালে ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম্য

দেলোয়ার হোসেন, রামগতিঃ- লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তৃপক্ষের বিধি নিষেধ না থাকায় বিভিন্ন ঔষধ...

নোয়াখালীতে ওসিসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে ঘুস দাবির মামলা

নোয়াখালীর চাটখিল থানার ওসি আবুল খায়ের ও দুই এএসআইসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে বিরোধপূর্ণ জমি...