২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসের জাতিসংঘ স্বীকৃতির জন্য সরকারকে তৎপর হতে হবে

শেয়ার

………. আ স ম আবদুর রব

স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলক, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসের জাতিসংঘ স্বীকৃতির জন্য সরকারকে তৎপর হতে হবে। বাঙ্গালী জাতি এ দিবস অবশ্যই পালন করবে। তবে ৭১ এর ২৫ মার্চ বাঙ্গালী জাতির উপর পাকিস্তান সেনাবাহিনী যে বর্বরোচিত গণগত্যা চালিয়েছে তা আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য জাতিসংঘ স্বীকৃতি প্রয়োজন। এর জন্য সরকারকে যেমন উদ্যোগী হতে হবে তেমনি কুটনৈতিক দক্ষতারও পরিচয় দিতে হবে। রব বলেন, ২৫ মার্চের কালোরাতের পর নয় মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে ৭১ এর ১৬ ই ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীকে আত্মসমর্পনে বাধ্য করেছে। এর পর বিগত ৪৬ বছরেও মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্ন ও চেতনা বাস্তবায়িত হয়নি। দেশে আজও গণতন্ত্র, অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন, মানবিক মর্যাদা ও শোষনমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠিত  হয়নি। এজন্য ২০১৭ এর স্বধীনতা দিবসের অঙ্গীকার হলো পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষ গঠন করে সেখান থেকে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের বিধান করে অবাধ-সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিত করা। এর মধ্য দিয়েই জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের সকল অঙ্গীকার বাস্তবায়নের পথ প্রশস্থ করতে হবে।

শনিবার বিকেল ৪ টায় মহান স্বাধীনতা দিবস ও গণহত্যা দিবস উপলক্ষে দলে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জেএসডি আয়োজিত আলোচনা সভার সভাপতির বক্তব্যে রব এসকল কথা বলেন।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেএসডি সাধারন সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, সিনিয়র যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আতাউল করিম ফারুক, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক মো: সিরাজ মিয়া, সহ সভাপতি তানিয়া ফেরদৌসী, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, এ্যাড.সৈয়দ বেলাল হোসেন বেলাল, মোশারফ হোসেন, এ্যাড. সৈয়দা ফাতেমা হেনা, এস এম সামসুল আলম নিক্সন, তৌফিকুজ্জামান পিরাচা প্রমুখ।

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.