লক্ষ্মীপুরে বিএনপি দলীয় কার্যালয় বিক্রি করে দিলেন যুবদল নেতা : তৃণমূলে ক্ষোভ

শেয়ার

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি :
জেলার রামগঞ্জ উপজেলার ৫নম্বর চন্ডিপুর ইউনিয়ন যুবদল নেতা কামাল হোসেন ঐদ্বারা দিঘীরপাড়ের (ফতেহপুর) ইউনিয়ন বিএনপি দলীয় কার্যালয় গোপনে বিক্রি করে দিয়েছেন এক আওয়ামীপন্থী প্রবাসীর নিকট। দলীয় কার্যালয় বিক্রির ঘটনা উক্ত এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। হতবাক হয়ে যান খোদ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরাও।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়ন যুবদল নেতা কামাল হোসেন পূর্ব চন্ডিপুর বেছারাম বাড়ির সাবেক ছাত্রনেতা জাহাঙ্গীরের আপন ছোট ভাই। ১৯৯১ ইং সনে দলীয় কার্যালয়টি প্রতিষ্ঠা লাভ করার পর অনৈতিকভাবে জেলা পরিষদ কার্যালয় থেকে গোপনে কামাল হোসেন নিজ নামে জমিটি লীজ নেয়। বিষয়টি দীর্ঘদিন গোপন থাকলেও সম্প্রতি উক্ত অফিসের জায়গাটি প্রবাসী ব্যক্তিটি বেড়া দিয়ে দখল করলে ঘটনাটি বিএনপি নেতাকর্মীরা জানতে পারেন।
স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মীরা আরো জানান, গর্ত ভরাট করে ও ঝোপঝাড় পরিস্কার করে প্রায় শতাধিক নেতা কর্মী গায়ে খেটেছেন, মাটি কেটেছেন, ঘর তুলেছেন। স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতাদের সাথে অনেক ঝামেলাও হয়েছে বার বার। এলাকার বিএনপি নেতাকর্মীরা নিজের বাসস্থানের মতই এই অফিসকে আগলে রেখেছেন কিন্তু আজ যুবদল নেতা নামধারী কামাল হোসেন তা বিক্রি করে দিয়েছে।
এ ব্যপারে অভিযুক্ত যুবদল নেতা কামাল হোসেন জানান, বিএনপির বেইল নাই, এইটা আর কোন দিনও ক্ষমতায় আইতো নো, এইটা বেছি টেয়া যা হাইছি তাই লাভ”।
এছাড়াও খবর নিয়ে আরো জানা গেছে যে তারা দুই ভাই কামাল হোসেন ও জাহাঙ্গীর হোসেন গত দুই ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পক্ষে ভোট করেছে শুধু তাই নয় তারা বিএনপি প্রার্থীকে কেন্দ্রেই আসতেই দেয়নি। প্রকাশ্যে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর পক্ষে ব্যালটে সিল মেরে আওয়ামীলীগকে জয়ী করেছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।
ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীরা কামাল হোসেন ও জাহাঙ্গীর হোসেনকে দল থেকে আজীবনের জন্যে বহিষ্কার দাবী করেন।

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.