লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার

শেয়ার

লক্ষ্মীপুর :

লক্ষ্মীপুরে জেসমিন আক্তার (৩০) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৭ এপ্রিল) সকালে সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চরমনসা গ্রাম থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। দুই সন্তানের জননী নিহত জেসমিন চরমনসা গ্রামের দৃষ্টিহীন রাশেদের (৩৮) স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, ভোলা জেলার বাসিন্দা সিরাজ নামে এক ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে দেন জেসমিন ও তার স্বামী রাশেদ। ঋণ নিয়ে দেওয়ার কিছুদিন পর সিরাজ পালিয়ে যায়। সেই থেকে ঋণের টাকার পরিশোধ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া লাগতো। এনিয়ে স্থানীয়ভাবে কয়েকবার বৈঠকও হয়। বৃহস্পতিবার (৬এপ্রিল) রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ফের ঝগড়া হয়। এর জেরে ধরে রাতের কোন এক সময় জেসমিন ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে পারে বলে ধারণা করছেন স্থানীরা।

নিহতরে বড় ভাই মো. খোকন বলেন, আমার বোনকে তার স্বামী মারধর করতো। এমনকি দুইবার কাঁথা-বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টাও করে। যদি আামার বোন আতœহত্যাও করে তার জন্য স্বামী রাশেদ দায়ী।

স্বামী রাশেদ বলেন, সিরাজ নামের ওই ব্যবসায়ীর সাথে জেসমিনের পরকিয়া সম্পর্ক  গড়ে উঠে। দু’বার পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে। গোপনে মোবাইলে কথা বলা ও ঋণের টাকার বিষয়ে স্ত্রী জেসমিনের সাথে কাটাকাটি হয়; যে কারণে অভিমান করে সে আতœহত্যা করেছে।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরেফিন বলেন, ঝুলন্ত অবস্থায় গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের  প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.