রায়পুরে চাঁদার দাবীতে হামলা নারীসহ আহত-৫

শেয়ার

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) সংবাদাতা :

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে চাঁদার দাবিতে আনোয়ার হোসেন খাঁন নামে এক নিরীহ ব্যবসায়ীর দোকানে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট করেছে একই এলাকার বখাটে সুমন হাওলাদার ও তার কয়েক অনুসারী। ওই সময় বাঁধা দেওয়ায় নারী ও শিশুসহ ৫জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিববার উপজেলার উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের চর ইন্দুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় রোববার বিকালে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার থানায় এজাহার দায়ের করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এ ঘটনা ছাড়াও সুমন ও তার অনুসারীরা ইতোমধ্যে এলাকায় আরো কয়েকটি নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনাসহ নানান অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা থাকলেও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের আত্মীয় এবং আশির্বাদ থাকায় সুমনের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। কেউ করলেও তাকে নানানভাবে হয়রানি ও লাঞ্চনার শিকার হতে হয়। আহত ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন খাঁন ও তাঁর স্ত্রী শাহীনা বেগম জানান, স্কুলের সম্মুখে দোকান চালানোর কারণে দীর্ঘদিন থেকেই তাদেরকে ২০ হাজার টাকা চাঁদা প্রদানের জন্য উত্যক্ত করছিল একই এলাকার জব্বর হাওলাদারে বখাটে পুত্র নব্য আওয়ামীলীগ ক্যাডার সুমন হাওলাদার। চাঁদা প্রদানে অস্কীকৃতি জানিয়ে বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্যদেরকে জানায় তারা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সুমন হাওলাদারের নেতৃত্বে জহির, দাদন, বাবু ও এমরানসহ ১০/১২ জন বখাটে ওই ব্যবসায়ীর দোকানে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। বাঁধা দিতে গেলে ব্যবসায়ী আনোয়ার, তার স্ত্রী শাহীনা ও স্কুল পড়–য়া পুত্র শাহিনসহ ৫জনকে পিটিয়ে আহত করে। অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য জানার জন্য রবিবার বিকালে একাধিকবার ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হোসেনের ব্যক্তিগত মোবাইলে  ও সুমন হাওলাদারের  মোবাইলে কল করা হলেও তারা কেউই কল রিসিভ করেননি। এ ব্যাপারে হাজীমারা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. ইয়াহিয়া বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.