রামগতির মেঘনায় আটক ৬ জলদস্যু কারাগারে

লক্ষ্মীপুর : লক্ষ্মীপুরের রামগতির মেঘনা নদীতে জেলে নৌকাতে ডাকাতি করার সময় আটক ৬ জলদস্যুকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিকালে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এরআগে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার দুর্গম ও বিচ্ছিন্ন আবদুল্লাহর চরের অদুরে মেঘনা নদীতে জেলেদের নৌকায় ডাকাতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে জেলেরা। এসময় জলদ্যুদের কাছ থেকে ১টি ধারালো ছেনি, ২টি দা ও ২টি রামদা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত জেলে মো. ছিদ্দিক ও মো. রুবেলকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আটক জলদস্যুরা হলেন, ভোলা জেলার দৌলতখাঁন উপজেলার চর খলিফা এলাকার আবদুর রবের ছেলে মো. কালাম (৩২), বোরহানউদ্দিন উপজেলার ফুলকাছিয়া এলাকার কাঞ্চন বেপারীর ছেলে মো. খোরশেদ আলম(৩০), চেয়ারম্যান বাজার এলাকার মঞ্জুর পাটোয়ারীর ছেলে মো. জিসান (২৮), নোয়াখালীর সুবর্নচরউপজেলার জাহাজমারা এলাকার তাজল কবিরাজের ছেলে আশরাফ উদ্দিন বেলাল (৩৫), চরবাটা এলাকার আলী হোসেনের ছেলে মো. মাহফুজুল হক (৪৫) ও কমলনগর উপজেলার চর কালকিনি এলাকার আবদুল জলিলের ছেলে মো.কামাল(৪৫)।

আলেকজান্ডার সেন্টার খাল মাছ ঘাটের আড়তদার মো. বাবুল জানান, রাতে তার আড়তের একটি মাছ ধরার নৌকা নিয়ে ৮ জেলেসহ ছিদ্দিক মাঝি চর আবদুল্লাহর অদুরে মেঘনা নদীতে জাল ফেলে মাছ ধরছিলেন। এসময় একটি নৌকা নিয়ে ৬ জলদস্যু ওই মাছ ধরার নৌকায় হামলা চালিয়ে ছিদ্দিক ও মো. রুবেলকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এক পর্যায়ে তাদের চিৎকারে আশ-পাশে জেলেরা এগিয়ে এসে ৬ জলদস্যুকে আটক করে পুলিশে দেয়।

রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সোলাইমান জানান, এঘটনায় ডাকাতির মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।