রামগঞ্জে শিক্ষকের হাতে প্রধান শিক্ষক লাঞ্ছিত,বিদ্যালয় বন্ধ

শেয়ার

রামগঞ্জ:
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলায় মাসিমপুর এলএম উচ্চ বিদ্যালয়ে নিষিদ্ধ গাইড বই ও পুথিপত্রের গ্রামার ব্যাকরনের টাকা ভাগ-ভাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার বিকেলে সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমানের হাতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবু চন্দ্র নারায়নকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ধাপাচাপা দিতে বুধবার বিদ্যালয় ছুটি ঘোষনা দেয় ম্যানেজিং কমিটির লোকজন।
জানা যায়, চলতি বছর মাসিমপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেনীতে পপি লাইব্রেরীর গাইড বই ও পুথিপত্রের গ্রামার ব্যাকরন মোটা অংকের কমিশন পাঠ্য করে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্রয় করতে বাধ্য করে শিক্ষকরা। উক্ত টাকার সিংগ ভাগই প্রধান শিক্ষক আত্মসাত করে। মঙ্গলবার স্কুল ছুটির পর টাকা ভাগবাটোয়ারা সময় সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমান প্রধান শিক্ষক হুমকি ধমকি দিয়ে শারীরিকভাবে  লাঞ্ছিত করেন।
নির্যাতনের শিকার প্রধান শিক্ষক বাবু চন্দ্র নারায়ন জানান, অন্যান্য শিক্ষকেরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকলেও সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমান ঠিকমত উপস্থিত না থাকায় সর্তক করে দিলে সে উত্তেজিত হয়ে আমাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করেন। বুধবার আমি স্কুলের জরুরী কাজে লক্ষ্মীপুর মিটিং এর রয়েছি। কিন্তু বিদ্যালয় কে বা কারা ছুটি দিয়েছে তা আমার জানা নেই।
সহকারি শিক্ষক মিজানুর রহমান বলেন, প্রধান শিক্ষক নিন্মমানের নিষিদ্ধ পপি গাইড থেকে কমিশন নিয়ে ওই গাইড বই ছাত্র-ছাত্রীদের কিনতে বাধ্য করছেন। এ নিয়ে একাধিকবার অনেক শিক্ষক প্রধান শিক্ষককে নিষেধ করলেও তিনি কোন তোয়াক্কাইা করেননি। তাই তার সাথে বাকবিতন্ড হয়েছে। বিদ্যালয়ের বিভিন্ন কাজে কয়েক জন শিক্ষক বাহিরে থাকায়  ছুটি দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ ফারুক হোসেন মোবাইলে জানান, আমি লক্ষ্মীপুরে জরুরী মিটিংয়ে ব্যাস্ত আছি। রাতে কথা হবে বলেই সংযোগ কেটে দেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবু ইউসুফ জানান,সরকার প্রত্যেক বিদ্যালয়েই সকল শিক্ষার্থীদের মাঝে গ্রামার-ব্যাকরন বই বিনা মূল্যে বিতরন করেছে। এর পরেও যদি কেউ টাকার বিনিময়ে বই পাঠ্য করে সেটা সম্পূর্ন অবৈধ। আর ওই অবৈধ পাঠ্য বই  নিয়ে প্রধান শিক্ষক লাঞ্চিতের ঘটনায় কেন স্কুল বন্ধ রাখা হয়েছে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.