রামগঞ্জে মসজিদের ঈমামকে মারধর;প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

শেয়ার

লক্ষ্মীপুর:
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ৪নং ইছাপুরে সুলতান আহম্মেদ নেতৃত্বে সমিতির বাজারের খতিব হাফেজ মোঃ আমিনুল ইসলাম নামের এক পেশ ঈমামকে পাঞ্জাবী ধরে টানা হেচড়া এবং মারধর করে লাঞ্চিত করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকালে ৪নং ইছাপুর ইউনিয়নের দক্ষিন নারায়নপুর সমিতির বাজারে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে নারায়নপুর স্থানীয় গ্রামবাসী সুলতান পাটোয়ারীর বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পদির্শন করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার নারায়নপুরে সমিতির বাজার জামে মসজিদের সেক্রেটারী সুলতান পাটোয়ারী ঈমান আমিনুলকে সমজিদে নামাজ পড়ানো ছাড়াও তার বাড়ির ব্যাক্তিগত কাজকর্ম করার জন্য নির্দেশ প্রদান করলে ঈমান তাৎক্ষনিক এর প্রতিবাদ করে। এসময় সুলতান পাটোয়ারী ঈমান আমিনুলের পাঞ্জাবী ধরে টানা হেচড়া ও চড়া থাপ্তর মারে। পরে সকাল ৯টায় এসংবাদ পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় সকল শ্রেনী পেশার লোকজন সুলতান পাটোয়ারীকে কমিটি থেকে অব্যাহতি ও তার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে।
এব্যাপারে মসজিদ কমিটির সভাপতি দেওয়ান ফরিদ জানান, সুলতান মিয়া এভাবে আমাদের ঈমামকে মারধর করে লাঞ্চিত করা ঠিক হয়নি। আমরা এর বিচার ও শাস্তি দাবি করছি।
অভিযুক্ত সুলতান পাটোয়ারী জানান, আমার উদ্যোগে আমি ঈমামকে বেতন-ভাতা দেই। আমার সব কথা ওকে শুনতে হবে। কথা না শুনায় হালকা পাতলা কিছু দেওয়া হয়েছে।
স্থানীয় নারায়নপুর ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ সবুজ পাটোয়ারী ঘটনার তীব্র নিন্দা প্রকাশ করে জানান, ঘটনা অত্যান্ত দুঃখ জনক। এখন মসজিদের সকল মুসল্লী যে সিদ্ধান্ত নেয় তাই হবে।

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.