উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় স্তব্ধ ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর। গোটা কাশ্মীর উপত্যকাজুড়ে বিরাজ করছে শুধুই আতঙ্ক। মাঝে মধ্যেই বেজে উঠছে সাইরেন আর ভারী বুটের শব্দে কেঁপে উঠছে উপত্যকা। এর মধ্যেই রাজ্যে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা।

গত কয়েকদিন আগে অমরনাথ যাত্রা বন্ধ করে দিয়ে হঠাৎ করেই কাশ্মীরে বাড়ানো হয়েছে আধাসেনার বহর।

কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল

কাশ্মীরের জনগণের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করেছে দেশটির পার্লামেন্ট। সোমবার রাজ্যসভায় কাশ্মীরীদের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের প্রস্তাব দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

সংসদে বিলটি পাশ হওয়ার তাতে ইতোমধ্যে সই করেছেন ভারতের প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দ।

মেহবুবা-ওমর গৃহবন্দি

এরই মধ্যে রবিবার মধ্যরাতে হঠাৎ করেই গৃহবন্দি করা হল দুইবারের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এবং ওমর আবদুল্লাকে। শুধু তাই নয়, গৃহবন্দি করা হলো সাবেক বি‌ধায়ক সাজ্জাদ লোনকেও।

এছাড়া আটক করা হয়েছে সিপিএম নেতা ইউসুফ তারিগামি এবং কংগ্রেস নেতা উসমান মজিদকে। হঠাৎ করে কেন এমন সিদ্ধান্ত নিল ভারত সরকার তা নিয়ে আরও জল্পনা-আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। যদিও এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত প্রশাসনের পক্ষ থেকে কিছুই জানানো হয়নি।

এদিকে, এভাবে গৃহবন্দি করায় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি বলেছেন, এভাবে বাক স্বাধীনতা হরণ করা যাবে না। মোদী সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ওমর আবদুল্লাহও। তার হুঁশিয়ারি, আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না।

কাশ্মীরজুড়ে ১৪৪ ধারা জারি

রবিবার মধ্যরাত থেকে কাশ্মীর উপত্যকাজুড়ে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। অনির্দিষ্টকালের জন্য জারি করা হয়েছে কার্ফু। পরবর্তী নির্দেশ দেওয়া না পর্যন্ত এই কার্ফু জারি থাকবে বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। কোনও জায়গায় মানুষের জমায়েত দেখলেই প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ স্কুল-কলেজ

কাশ্মীরে ১৪৪ ধারা জারির পর সেখানে অনির্দিষ্টকালের বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সব ধরনের স্কুল-কলেজ। বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে পড়াশুনা করা শিক্ষার্থীদের নিরাপদ জায়গায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ডিশ-ইন্টারনেট বন্ধ

কাশ্মীরে ১৪৪ ধারা জারির পর রাজ্যজুড়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট ও ক্যাবল সেবা। এছাড়া কাশ্মীরে অবস্থানরত যুব ক্রিকেটারদেরও সেখান থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

ঝুঁকিপূর্ণ থানায় বিএসএফ’র টহল

শোপিয়ানের মতো স্পর্শকাতর এলাকাগুলোতে থানা পাহারা দিচ্ছে বিএসএফ। শ্রীনগর-কাশ্মীরজুড়ে রবিবার রাতে জারি করা হয়েছে হাই-অ্যালার্ট। সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে সেনা-সীমান্তরক্ষী বাহিনীকেও। বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। বিভিন্ন জায়গায় পিকেটিং করা হয়েছে। চলছে সেনার টহলদারি।

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তেও সেনাবাহিনীকে চূড়ান্ত সতর্ক থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে

Print Friendly, PDF & Email