গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় অনুমোদিত

ওমিক্রন রোধে সরকারি বিধি-নিষেধ আজ থেকে কার্যকর

ঢাকা: নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন প্রতিরোধে বিধিনিষেধ বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) থেকে কার্যকর শুরু হয়েছে।

তবে, গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নির্দেশনা শুরু হবে ১৫ জানুয়ারি। এক্ষেত্রে পূর্বের ভাড়ায় চলবে গণপরিবহন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ সংক্রান্ত সোমবার (১০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। যা ১৩ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে।

আগামী ১৩ জানুয়ারি থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হলো।

১। দোকান, শপিংমল ও বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং হোটেল-রেঁস্তোরাসহ সব জনসমাগমস্থলে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে। অন্যথায় তাকে আইনানুগ শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে।

২। অফিস-আদালতসহ ঘরের বাইরে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে ব্যত্যয় রোধে সারাদেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে।

৩। রেঁস্তোরায় বসে খাবার গ্রহণ এবং আবাসিক হোটেলে থাকার জন্য অবশ্যই করোনা টিকা সনদ প্রদর্শন করতে।

৪। ১২ বছরের ঊর্ধ্বের সব ছাত্র-ছাত্রীকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্ধারিত তারিখের পরে টিকা সনদ ছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না।

৫। স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও বিমানবন্দরসমূহে স্ক্রিনিংয়ের সংখ্যা বাড়াতে হবে। পোর্টসমূহে ক্রু-দের জাহাজের বাইরে আসার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করতে হবে। স্থলবন্দরগুলোতেও আগত ট্রাকের সাথে শুধুমাত্র ড্রাইভার থাকতে পারবে। কোনো সহকারী আসতে পারবে না। বিদেশগামীদের সঙ্গে আসা দর্শণার্থীদের বিমানবন্দরে প্রবেশ বন্ধ করতে হবে।

৬। ট্রেন, বাস এবং লঞ্চে সক্ষমতার অর্ধেক সংখ্যক যাত্রী নেওয়া যাবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কার্যকারিতার তারিখসহ সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা জারি করবে। সব ধরনের গাড়িচালক ও সহকারীদের আবশ্যিকভাবে কোভিড-১৯ টিকা সনদধারী হতে হবে।

৭। বিদেশ থেকে আগত যাত্রীসহ সবাইকে বাধ্যতামূলক কোডিড-১৯ টিকা সনদ প্রদর্শন ও  র‌্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট করতে হবে।

৮। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন এবং মাস্ক পরিধানের বিষয়ে সব মসজিদে জুমার নামাজের খুতবায় ইমামরা সংশ্লিষ্টদের সচেতন করবেন। জেলা প্রশাসক উপজেলা নির্বাহী অফিসাররা এ বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

৯। সর্বসাধারণের করোনার টিকা এবং বুস্টার ডোজ গ্রহণ ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় প্রচার এবং উদ্যোগ গ্রহণ করবে। এক্ষেত্রে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সহায়তা গ্রহণ করবে।

১০। কোভিড আক্রান্তের হার ক্রমবর্ধমান হওয়ায় উন্মুক্ত স্থানে সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান এবং সমাবেশসমূহ পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে হবে।

১১। কোনো এলাকার ক্ষেত্রে বিশেষ কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে সেক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নিতে পারবে।

সব সিনিয়র সচিব/সচিব, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার এবং বিভাগীয় কমিশনারদের উল্লিখিত বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ

একদিনে করোনা শনাক্ত ১৫৫২৭, মৃত্যু ১৭

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৫২৭ জনের। এ...

রামগঞ্জে মিথ্যে মামলায় ব্যবসায়ী জেল হাজতে

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে অনৈতিক ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে মোঃ মনির হোসেন নামের এক ব্যবসায়ীকে...

কমলনগরে নির্বাচনের ২মাস পর বিজয়ী প্রার্থীর গেজেট বাতিল চেয়ে সাবেক চেয়ারম্যানের মামলা

লক্ষ্মীপুর, কমলনগর: লক্ষ্মীপুর জেলার কমলনগর উপজেলায় নির্বাচনের দুই মাস পর ভোটের ফলাফল বানচালের অভিযোগে গেজেট...

শীতে সবুজ টমেটো খাওয়ার উপকারিতা

২) ভিটাভিন সি ও ই সমৃদ্ধ কাঁচা টমেটো শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তোলে।...

রামগতিতে সরকারি হাসপাতালে ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম্য

দেলোয়ার হোসেন, রামগতিঃ- লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তৃপক্ষের বিধি নিষেধ না থাকায় বিভিন্ন ঔষধ...

নোয়াখালীতে ওসিসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে ঘুস দাবির মামলা

নোয়াখালীর চাটখিল থানার ওসি আবুল খায়ের ও দুই এএসআইসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে বিরোধপূর্ণ জমি...