এক মিনিট দেরী, কমলনগরে মনোনয়ন দাখিল করতে পারেনি দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী 

শেয়ার

স্টাফ রিপোর্টার, শাহরিয়ার কামাল 

কমলনগরের চরলরেন্স ইউনিয়ন পরিষদ উপনির্বাচন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে বুধবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস থেকে একই ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ  করেন ইসমাইল হোসেন। বৃহস্পতিবার ৪ জুলাই মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে তড়িঘড়ি করেও অনলাইনে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেননি । এতে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

তার মতো আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল করিম নির্ধারিত সময়ের মাত্র ১ মিনিট পর নির্বাচন অফিস কার্যালয়ে হাজির হলে একইভাবে মনোনয়ন ফরম দাখিল করতে পারননি।

জানা গেছে,চলতি বছরের ১৭ মে (শুক্রবার) চরলরেন্স ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন মাষ্টার মৃত্যুবরণ করেন।  তার মৃত্যুতে গত ২৭ই জুন তারিখে ইউনিয়নটিতে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাচন অফিস কর্মকর্তা।  এর আগে ১৯ই মে (রবিবার) ইউনিয়নটিতে চেয়ারম্যান পদটি শুন্য ঘোষণা করা হয়।

এরই প্রেক্ষিতে চেয়ারম্যান পদে ১৯জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। বৃহস্পতিবার ৪ (জুলাই) বিকেল ৫টা পর্যন্ত ছিল মনোনয়নপত্র দাখিল করার শেষ সময়।

এদিন ১৩জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

এসময় মনোনয়নপত্র দাখিল করতে না পেরে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী নুরুল করিম  জানান,

নির্ধারিত সময়ের মাত্র ১ মিনিট ( পাঁচটা ১ মিনিটে) পর তিনি নির্বাচন অফিস কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। এসময় ১ মিনিট দেরী করার অজুহাতে নির্বাচন কর্মকতা জাহিদুল ইসলাম মনোনয়নপত্র জমা না নিয়ে উল্টো  মনোনয়ন পত্র জমা না নিয়ে চলে যেতে বলেন। এসবের ভিডিও ফুটেজ তার কাছে রয়েছে বলে তিনি জানান। তবে এ কর্মকর্তা পক্ষপাতিত্ব করে এমনটা করেছেন বলে অভিযোগ নুরুল করিমের।

তিনি আরও বলেন, আয়কর রিটার্ন দাখিলের কাগজপত্র সংগ্রহ করতে লক্ষ্মীপুর আয়কর অফিসে গেলে সেখানে বিদ্যুত না থাকায় কাগজ সংগ্রহে দেরী হয়। যে কারণে উপজেলা নির্বাচন অফিসে প্রবেশে নির্ধারিত সময় থেকে ১ মিনিট দেরী হয় তার।

অপর প্রার্থী ইসমাইল হোসেনও একই কথা জানিয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়ে কমলনগর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জাহিদুল ইসলাম বলেন,  নির্ধারিত সময় ৫টার মধ্যে যেসমস্ত ফরম জমা হয়েছে সেগুলো তিনি গ্রহণ করেছেন। এক মিনিট দেরীতে আসলেও তা গ্রহণ করার সুযোগ নেই। তবে পক্ষপাতিত্বের বিষয়ে জানতে চাইলে কাজ করছি জানিয়ে ফোন কেটে দেন তিনি।

সম্পর্কিত খবর

No widgets found. Go to Widget page and add the widget in Offcanvas Sidebar Widget Area.